চট্টগ্রাম

করোনায় প্রাণহানির শঙ্কা বাড়ছে বয়ষ্কদের, চট্টগ্রামে একদিনেই ৮ জনের মৃত্যু

করোনায় প্রাণহানির শঙ্কা বাড়ছে বয়ষ্কদের, চট্টগ্রামে একদিনেই ৮ জনের মৃত্যু

চট্টগ্রামে বয়স্ক ও অনান্য রোগে যারা আগে থেকেই আক্রান্ত করোনায়া তাদের মৃত্যুর আশঙ্কা আবারও বেড়েছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে শনিবার একদিনেই আরও আটজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৬৩ জনে।

একই সময়ে গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে নতুন করে আরও ৭৪ জনের দেহে করোনার জীবাণু পাওয়া গেছে। যাদের মধ্যে ৫৫ জন নগরের ও ১৯ জন উপজেলার বাসিন্দা। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৫১ হাজার ৯৩ জনে। রবিবার (৯ মে) জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, নতুন করে বয়স্করা আবার বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। মাঝে যুবকদের আক্রান্তের হার বেশি ছিল। বয়স্ক রোগী যাদের ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, কিডনী রোগ আছে, তারা করোনায় আক্রান্ত হলে সাথে সাথেই অক্সিজেন স্যাচুরেচন লেভেল কমে যাচ্ছে। শ্বাসকষ্ট শুরু হচ্ছে। রোগীকে বাঁচানো যাচ্ছে না।

সিভিল সার্জন বয়স্ক রোগীদের ঘর থেকে একদমই বের না হতে পরামর্শ দেন। একই সাথে ঘরের অনান্য বাসিন্দাদের সতর্ক থাকতে ও মাস্ক না পড়ে বাইরে যেতেও নিষেধ করেছেন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি।

এদিকে সিভিল সার্জন অফিস সূত্র আরও জানায়, শনিবার (৮ মে) চট্টগ্রামের ছয়টি ল্যাব ও কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ১১৯৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৭৪ জনের করোনা পজিটিভ আসে। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে ৩৮৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২২ জন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ২৪২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৯ জনের দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। তবে এদিন কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে ৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে কারও শরীরে কারোনার জীবাণু পাওয়া যায়নি।

অন্যদিকে শেভরণে ৫০৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৪ জন, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে ১২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জন ও চট্টগ্রাম আর.টি.আর.এল-এ ৩৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১২ জন এবং মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ১৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩ জনের দেহে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

তবে এদিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটি, ইমপেরিয়াল হাসপাতালে কোন নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *